#তোকে চাই পর্ব ১২

0
152

#তোকে চাই❤ পর্ব১২
#রোদেলা❤



বাসায় ফিরছি আর উনার দিকে আড়চোখে তাকাচ্ছি,,,উনার মাথায় কি চলছে তাই বোঝার চেষ্টা।।কিন্তু উনি আমার চেষ্টায় জল ঢেলে দিয়ে চুপচাপ ড্রাইভ করে চলেছেন।।কি আলতো হাতে ড্রাইভ করছেন উনি,,,উনার হাতের উপরও কেমন প্রেম প্রেম ভাব আসছে আমার🙈,,,এত্তো কিউট কেন উনি??ইচ্ছা করছে গাল দুটো টেনে দিয়ে,,,টাইট একটা কিসি দিই,,,কিন্তু ,তা কি আর আমার ভাগ্যে আছে নাকি??ব্যাটা দেবদাস,,নীলি নীলি করেই মরে যাচ্ছে।।মুখটা গোমড়া করে বসে আছি,,,মনে হচ্ছে কেউ আমার সামনে চকলেট আইসক্রিম রেখে দিছে বাট আমি খেতে পারছি না,,,কিন্তু অপর পাশ থেকে ক্রমাগত লোভ দেখিয়ে চলেছে ,,হুহ।।।আমাকে মন খারাপ করে থাকতে দেখেই হয়তো উনি বলে উঠলেন,,,

কি হয়েছে??(ভ্রু কুঁচকে)

কিছু করেছেন যে কিছু হবে???(বলেই জিব্বায় কামড় দিলাম,,,ছি ছি কি বলে ফেললাম)

উনি অবাক হয়ে আমার দিকে তাকিয়ে থেকে ভ্রু কুঁচকে বলে উঠলেন,,,

কি বললা??

ক,,,কই কিছুই না তো,,,(ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে)

বাচ্চা একটা মেয়ের মুখে,,এতো বাজে কথা কোথা থেকে আসে??(রাগী কন্ঠে)

এই শুনুন,,আমি মোটেও বাচ্চা নই,,যথেষ্ট এডাল্ট,,আমার তো বিয়েও হয়ে গেছে হুহ,৷ (ভাব নিয়ে)

এবার উনি হুহু করে হেসে দিলেন,,,আমার আবারো নীলিমার ভূতের কথা মনে পড়ে গেলো,,আল্লাহ এখন তো আরো রাত,,,যদি উনি আমাকে মেরে টেরে ফেলেন,,,হায় আল্লাহ্,,,ভেবেই গাড়ির দরজার সাথে লেগে বসে,,,,, সন্দেহের দৃষ্টিতে উনার দিকে তাকিয়ে বলে উঠলাম,,,

ক,,,কি ব্যাপার হাসছেন কেন??

তুমি এডাল্ট??লাইক সিরিয়াসলি??এখনো নাক টিপলে দুধ বের হবে,,,আর বলছে কি না আমি এডাল্ট,,,,হাহাহা,,প্লিজ ডোন্ট মেক মি লাফ,,,আমি তোমার থেকে ৫ বছরের বড়,,ওকে?

এবার আমার রাগ লাগছে,,উনি আমাকে অপমান করছেন,,,,

এক্সকিউজ মি?আপনি বুইড়া বলে যে সবাই বাচ্চা হবে তা কিন্তু নয়,,,,ওকে???(হাত দিয়ে নাক ঘষে)

কিহ??আমি বুইড়া??(ভ্রু কুঁচকে)

অবশ্যই আপনি বুইড়া,,,আমি বাচ্চা হলে আপনি ১০০% খাটি বুইড়া,,,হুহ(মুখ ভেঙিয়ে)

আর ইউ মেড??তোমার চোখে কি সমস্যা আছে??আমার মতো হট এন্ড হ্যান্ডসাম ছেলেকে তোমার কাছে বুইড়া মনে হয়??তুমি জানো??মেয়েরা আমাকে দেখেই ফিদা হয়ে যায়,,হুহ

ওহ,,,রিয়েলি??নাইস জোক,,,আপনি হট এন্ড হ্যান্ডসাম হলে পৃথিবীর সব হ্যান্ডসাম ছেলেরা সুইসাইড করবে,,,,শুধু তাই নয়,,আই থিংক “হ্যান্ডসাম ” শব্দটাও আপনার নিজেকে হ্যান্ডসাম দাবি করায় লজ্জা পাচ্ছে,,,,,প্লিজ তার প্রতি রহম করুন(হাত জোড় করে)আর কি জানি বললেন ফিদা??হুহ,,কই আমি তো ফিদা হলাম না।।।

তোমার মধ্যে মেয়ে টাইপের কিছু আছে নাকি যে ফিদা হবা???(দাঁত দাঁতে চেপে)

মানে??(চিৎকার করে)

চেঁচাও কেন,,ঠিকি তো বলছি,,,তুমি মেয়ে না ছেলে এটা বুঝতেই সবার দুইমিনিট সময় লাগবে,,,

আমি এবার কেঁদেই দিলাম,,উনি কি করে পারলেন,,আমাকে এতো বাজে কথা বলতে??খাটাস একটা,,

এই এই কাঁদো কেন??

তো,,আপনি ওভাবে বললেন কেন??

তুমিও তো বলছো আমায়,,আমি কান্না করছি??এখনই প্রুভ হলো তুমি বাচ্চা,,,বাচ্চাদের মতো ফেসফেস করে কাঁদছো।।

উনার সাথে ঝগড়া করতে করতেই বাসায় এসে পৌছাঁলাম।।ছেলেরা যে এভাবে কোমর বেঁধে ঝগড়া করে জানতাম না,,উফফফ।।।ডিনার করে রুমে এসে,, ফ্রেশ হয়ে যেই না বিছানায় বসতে যাবো,,,ওমনি উনি বল উঠলেন,,,,

রোদদদ??এই রোদ??

কি হয়েছে??(বিরক্তি নিয়ে)

কফি খাবো,,,

তো?? আমি খাওয়ায় দিবো?(রাগী কন্ঠে)

জি না,,শুধু নিয়ে এসে দিলেই চলবে,,,,গো,,,,

রাগে ছিটতে ছিটতে কফি এনে উনাকে দিতে যাবো,,তখনি বলে উঠলেন,,,

ও এনেছো??এক্চুয়েলি রোদদ,,,প্রতিদিন কফি খেতে খেতে বোর হয়ে গেছি,,তুমি বরং চা করে আনো,,যাও।।

কথাটা বলেই ল্যাপটপটা কোলে নিয়ে কাজ করতে লাগলেন,,,মেজাজ আমার ব্যাপক গরম হয়ে আছে,,,একে তো বাইরে থেকে আসছি,,একটু রেস্ট নিবো তা না,, এই সাদা বিলাই আমাকে খাটিয়ে মারছে,,,,কিছু না বলে গেলাম নিচে,,,মামানি নিজের জন্য চা বানিয়ে মাত্রই মুখে দিবো,,,ওমনি উনার,হাত থেকে চা টা নিয়ে চলে এলাম।।না তাকিয়েও বুঝতে পারছি উনি অবাক হচ্ছেন বাট কিছু করার নেই,,,চা টা এনে উনাকে দিতেই বলে উঠলেন,,,,

আরে,, দুধ চা আনছো কেন??আমি দুধ চা খাই না,,,,রং চা আনো।।।

এবার আমার মাথায় আগুন ধরে গেলো ব্যাটার চুলগুলো টেনে ছিঁড়ে ফেলতে ইচ্ছা করছে।।।শালা খচ্চর একটা,,,😡

আমি পারবো নননননননা,,,,,আপনার সব কথা শুনতে হবে নাকি আজিব,,,(চিৎকার করে),

হ্যা শুনতে হবে,,,তুমি ভুলে গেছো?? গাড়িতে বলছিলা,,আমার সব কথা শুনে চলবে(দাঁত কেলিয়ে)যাও যাও,, নিয়ে এসো।।।

ইইইইইইই,,,,আজ থেকে উড়নায় পড়তাম না,,এই উড়নায় যতো নষ্টের গোড়া,,,,রাগে যেনো আমার মাথা ফেটে যাচ্ছে,,,উফফফ,,,লোকটা কি ইরিটেটিং,,, রাগে ফোঁফাতে ফোঁফাতে নিচে নামলাম,,এবার মামুও মামানির সাথে বসে আছে।।মামানি আমাকে দেখেই তাড়াতাড়ি চায়ে চুমুক দিলেন,,,,আমি সোজা আরিফ চাচার সামনে দাড়ালাম,,উনি মামুকে চা দিচ্ছিলেন,,মামু উইথআউট সুগার রং চা খায় জানতাম,,,,তাই উনার হাত থেকে চা টা নিয়ে,,, নিচে বসে থাকা সবাইকে দ্বিতীয় বারের মতো অবাক হওয়ার সুযোগ করে দিয়ে ওখান থেকে কেটে পড়লাম।।।
এবার রুমে গিয়ে সোজা উনার সামনে দাঁড়ালাম,,,উনি কিছু বলতে যাবেন তার আগেই চা টা টেবিলে রেখে,, উনার হাত থেকে লেপটপটা ছিনিয়ে নিয়ে কলার চেপে ধরে রাগী গলায় বলে উঠলাম,,,,

এবার যদি না খাইছিস তো তোর মাথায় ঢালুম চা,,,বুঝছিস???

বলেই কলার ছেড়ে উনার হাতে চায়ের কাপটা ধরিয়ে দিয়ে কোমরে হাত দিয়ে দাড়ালাম,,,,উনি আর কিছু বললেন না,,চুপচাপ খেয়ে নিলেন।।।উনার মুখের অবস্থা দেখে রাগ ভুলে হুহা করে হেসে দিতে ইচ্ছে করছে,,কিন্তু নিজেকে সামলে নিয়ে বিছানায় শুতে চলে গেলাম।।বিছানার কাছে গিয়ে দাড়াতেই উনি বলে উঠলেন,,,,বিছানায় নয় তুমি সোফায় শুবা,,,,

আমি অবাক হয়ে উনার দিকে তাকালাম কারন এই কয়দিন এক বিছানাতেই থেকেছি আজ হঠাৎ কি হলো??আমি ভ্রু কুঁচকে জিগ্যেস করলাম,,

কেনো???

আমি বলছি তাই,,,

আপনি যেহেতু বলছেন,,,তো আপনিই সোফায় ঘুৃমান আমি পারবো না।।।

তুমি আমার কথা শুনতে বাধ্য,,,

মোটেও না,,,,

হঠাৎই উনি উঠে দাড়ালেন,,,উনার দাড়ানো দেখেই আমার গলা শুকিয়ে গেলো,,,এতো ক্ষনের কনফিডেন্সগুলোও সাথে সাথেই ফুঁসসসস হয়ে গেলো,,,, উনি শার্টের হাতা গুটাতে গুটাতে আমার দিকে এগিয়ে আসছেন,,এটা দেখে তো রীতিমতো কাঁপা-কাঁপি অবস্থা,, ,,,, এবার আমি শেষ……

#চলবে,,,,

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here