#তোকে চাই পর্ব ৪০

0
134

#তোকে চাই❤পর্ব৪০
#নৌশিন আহমেদ রোদেলা❤



বিছানায় বসে ভ্রু কুঁচকে তাকিয়ে আছি,,,বিরক্তিভাবটা মাথায় চাড়া দিয়ে উঠেছে,, আমার বিরক্তির প্রধান এবং একমাত্র কারণ হলো শুভ্র।।সে পুরো ঘরে কার্পেট বিছাতে ব্যস্ত।।তার চিন্তার বিষয় হলো যদি আমি পা পিছলে পড়ে যাই।।মাত্র ১০ দিন হলো আমি জানতে পেরেছি আমি কনসিভ করেছি আর এর মধ্যেই উনি সারা বাড়িতে কার্পেট বিছাতে শুরু করে দিয়েছেন,,,উনার ভাব দেখে মনে হচ্ছে দুনিয়াতে একমাত্র উনার বউই বাচ্চা জন্ম দিচ্ছে,,,আর সবার বাচ্চা তো আকাশ থেকে টুপটুপ করে পড়ছে,,বিরক্তিকর।।। আর সবচেয়ে বিরক্তিকর ব্যাপার হলো,,মামু উনাকে অলরেডি তিনবার ডেকে গেছেন যে অফিসে ইম্পোর্টেন্ট মিটিং আছে,,বাট উনার এককথা তিনি অফিস যাবেন না।।ডেলিভারি হওয়ার আগে ঘর ছেড়েই বেরুবেন না,,,কথাটা শুনেই মেজাজটা চড়া হয়ে গেলো,,,এখনো একমাস ও হলো না আর মহাশয় সব কাজ বাদ দিয়ে ডেলিভারির চিন্তা করছে,,,ভাবা যায় এগুলো??রাগে আমার রীতিমতো মাথা ব্যাথা শুরু হয়ে গেছে ,,, বাড়ির সবাই কি ভাববে??ছিহ,,,আপুও তো প্রেগনেন্ট তবু তো ভাইয়া একা হাতে সব সামলাচ্ছেন নাকি,,,আর এক উনাকে দেখো!!”উফফফ,,ইচ্ছা করছে উনাকে উষ্ঠা মেরে উগান্ডা পাঠিয়ে দিই,,যত্তোসব।।।

এই যে মিষ্টার???

হুম,,বলো

বলো মানে??এদিকে আসুন,,(রাগী গলায়)

আমি বিজি আছি বলো শুনছি,,,(কার্পেট মোড়াতে মোড়াতে)

আপনার কাজের গোষ্ঠী কিলাই,,,,এদিকে আসুন বলছি,,(চিৎকার করে)

কি হয়ছে??সমস্যা টা কি??(ভ্রু কুচঁকে)চেচাঁচ্ছো কেন??

চেচাচ্ছি কি সাধে??আপনি অফিস যাবেন না??

না,,,

কেন??

তোমাকে রেখে যাবো না,,,

তাহলে চলুন আমিও আপনার সাথে যাই(দাঁতে দাঁত চেপে)

উনি তীক্ষ্ণ দৃষ্টিতে আমার দিকে তাকালেন,,,,”তুমি কি রেগে আছো??”

উনার কথাটা শুনে মেজাজটা আরো খারাপ হয়ে গেলো,,মহাশয় এতোক্ষণে বুঝতে পারছে যে আমি রেগে আছি,,,,”নাহ,,রাগবো কেন??খুশিতে নাচানাচি করছি দেখছেন না???”

আরে বাবা,,হয়েছেটা কি সেটা তো বলবে,,

কি হয়েছে মানে??আপনি অফিস যাচ্ছেন না কেন??আপনার কি মনে হয়??আমিই পৃথিবীতে ফাস্ট কনসিভ করেছি নাকি??আজিব…আপুর ৮ মাস চলছে,,তবু ভাইয়াকে দেখছেন ঘরে বসে থাকতে??(ঝাঁঝালো গলায়)

বউ মনি আর তুমি এক হলা??তোমাদের বয়সের ডিফারেন্স তিন তিনটা বছর।।ও তোমার থেকে যথেষ্ট স্ট্রং,,,তাই ভাইয়ার টেনশনও কম,,,

আপনি বলতে চাইছেন আমি স্ট্রং গার্ল নই??(ভ্রু কুচঁকে রাগী গলায়)

আ,,আ নাহ,,,আমি বলছি যে,,,

হ্যা কি বলছেন তাই শুনতে চাইছি,,,,(দাঁতে দাঁত চেপে)

ত,,তুমি অনেক স্ট্রং বাট আমি একদম স্ট্রং নই,,,তোমাকে এখানে রেখে গেলে আমি টেনশনেই মরে যাবো,,,

ফাউল কথা বাদ দিয়ে চলুন ফটাফট রেডি হয়ে নিন,,,,ডায়নিং এ যাবো তারপর আপনি সোজা অফিসে,,,,ওকে??

নট ওকে,,,আমি অফিস যাবো না ব্যস।। এখন চলো খাওয়া কমপ্লিট করে আসি।।

তাহলে আমিও খাবো না,,,ব্যস

রোদ,,,,ওলওয়েজ তোমার এসব জেদ ভালো লাগে না(রাগী গলায়)

আমি খাবো না মানে খাবো না,,,,

ওকে ফাইন,,,যাবো অফিসে এখন উঠো,,,(দাঁতে দাঁত চেপে)

সত্যি,,,উফফ আপনি কতো ভালো,,

হুমমম,,,আই নো আমি ভালো,,,

কথাটা বলেই উনি আমার গালে ঠোঁট ছুয়ালেন৷।। আর আমি রাগী চোখে তাকালাম,,,

কি হলো??এভাবে তাকাচ্ছো কেন??(ভ্রু কুচঁকে)

আপনার রিয়েকশন কপি করছিলাম,,,(একগাল হেসে)

আমার রিয়েকশন??

হুমম,,,আগে আমি আপনাকে কিস করলে এমন রিয়েকশনই তো দিতেন,,,,

ওহ তাই??তাহলে এখন একটা দিয়ে দেখো,,,দারুন রিয়েকশন দিবো বেবি,,,(চোখ টিপে)

ধেৎ চলুন তো,,,ক্ষুধা লাগছে,,,(ঠোঁট উল্টে)

ওকে,,,,চলুন মহারানী।।(মুচকি হেসে)

খাবার টেবিলে বসে আছি,,,সবাই খাচ্ছে বাট আমি খেতে পারছি না।।তার কারণ হলো আমার ব্যাপক হাসি পাচ্ছে,,,কিন্তু এমন নিসিদ্ধ জায়গায় হাসা যাবে না তাই হাসি চাপার চেষ্টায় আছি।।আমার হাসির মূল উৎস হলো অভ্র ভাইয়া।।আপুর ডেলিভারি ডেট যতো এগিয়ে আসছে ততোই উনার চুখেমুখে একটা অসহায় অসহায় ভাব ফুটে উঠছে,,,এই মুহূর্তে উনি ঠিক নীরিহ বিড়াল ছানার মতো আপুর দিক তাকিয়ে আছেন,,,উনারই যদি এই অবস্থা হয়,,,তাহলে আমার শুভ্রর যে কি হবে???আল্লাহই জানে,,,আপু খাওয়ার মাঝপথে একটু নড়েচড়ে বসতেই ভাইয়া যেনো চমকে উঠলেন,,,,কন্ঠস্বর খাদে নামিয়ে বলতে শুরু করলেন,,,ঠিক আছো??পেট ব্যাথা করছে??খেতে সমস্যা হচ্ছে??বমি পাচ্ছে,,,,এমন হাজারো প্রশ্নের স্তুপ।। আর আপু বিরক্তি নিয়ে উনার দিকে তাকিয়ে আছেন।।আপুর চাহনি দেখেই বুঝা যাচ্ছে উনি এই কাজটা ইতোপূর্বে বেশ কয়েকবার করে ফেলেছেন।।ব্যাপারটা আমি বেশ ইনজয় করছি,,,,শান্তি শান্তিও লাগছে,,, বাহ,,,আমার মতো আপুও দেখি “অতি ভালোবাসা” নামক প্যারায় আক্রান্ত যদিও শুভ্ররটা একটু বাড়াবাড়ি।।আমার আরো হাসি পেলো যখন মামু বললো,,,”অভ্র,শুভ্র,,লেটস গো বয়েজ।।” কথাটা শুনার সাথে সাথেই দুজনের মুখেই রাজ্যের অসহায়ত্ব ফুটে উঠলো।।অভ্র ভাইয়া আপুর দিকে অসহায় দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছে,,আর আপু নির্বিকার ভঙ্গিতে খেয়ে চলেছে।।শুভ্রর দিকে তাকিয়ে দেখলাম সে ও আমার দিকে তাকিয়ে রয়েছে,,কিন্তু আমি সেদিকে পাত্তা না দিয়ে আপু আর ভাইয়ার কান্ড দেখতে ব্যস্ত হয়ে পড়লাম।।।ওদের দুজনের উঠার নাম গন্ধ না দেখে মামুও অসহায় চোখে মামানির দিকে তাকালেন,,,যার অর্থ এই,,,”তোমার ছেলেরা বউ পাগলা হয়ে গেছে এদের কিছু করো,,,এই বুড়ো বয়সে একা অফিস করতে পারবো না আমি।।” কিন্তু মামুর এই অসহায় দৃষ্টি মামানির কাছে কোনো পাত্তা পেল বলে মনে হচ্ছে না।।।উনি খুব মনোযোগ দিয়ে চায়ের কাপে চুমুক দিয়ে চলেছেন।।।এদের অবস্থা দেখে আমার ইচ্ছে হচ্ছিলো,,, গড়াগড়ি দিয়ে হাসি বাট উপায় নেই দেখে চেপে গেলাম।।।অবশেষে তিনজনই অফিসের জন্য পা বাড়ালান,,,আলহামদুলিল্লাহ।।।


বিছানায় হেলান দিয়ে বসে বেবির কথা ভাবছি।।মাত্র ১০ মাসে আমার লাইফটা কতোটা বদলে গিয়েছে ভাবতেই অবাক লাগে,,,১০ টা মাস আগেও,,,রাতে হঠাৎ ঘুম ভেঙে গেলে পুরো বাসায় মাথায় করে ফেলতাম,,,সবাইকে ঘুম থেকে জাগিয়ে,,বাবা-মার মাঝখানে গিয়ে বসে থাকতাম,,আর এখন??আমার নিজেরই এমন একটা পুচকু হবে,,, ইসস ভাবা যায়??কার মতো হবে ও??আমার মতো??বাপরে তাহলে নিশ্চয় হার জ্বালিয়ে খাবে,,,তারচেয়ে বরং উনার মতো হওয়ায় ভালো,,,একদম শান্ত শিষ্ট।।।দরজায় শব্দ হওয়ায় ফিরে তাকালাম,,,উনি ফিরেছেন,,,ঘড়ির দিকে তাকিয়ে দেখলাম রাত এগারোটা বাজে।।সারাটা দিনে উনি যে কতোবার কল করেছেন তার ইয়াত্তা নেই।।উনাকে দেখেই বুঝা যাচ্ছে খুব টায়ার্ড,,আমাকে দেখেই শুকনো হাসি দিয়ে কপালে ঠোঁট ছুইয়ে ওয়াশরুমে ঢুকে গেলেন।।।আমার চোখদুটো ওয়াশরুমের দরজায় স্থির,, কখন বেরুবেন আর আমি দেখবো,,সারাটাদিন খুব মিস করেছি উনাকে।।কিছুক্ষণ পরই উনি বেরিয়ে এলেন,,,ব্লু টিশার্ট আর এ্যাশ কালারের থ্রি-কোয়াটার প্যান্ট পড়েছেন উনি।।উনার পায়ের লোমগুলো মারাত্মক লাগছে।।এলোমেলো চুল আর হাজারো ক্লান্তি নিয়ে আমার দিকে তাকিয়ে মৃদু হাসলেন,,,আমি হাতের ইশারায় উনাকে কাছে ডাকলাম আর উনিও বাচ্চাদের মতো হেলেদুলে আমার কাছে এসে বসলেন,,,

কি??(ভ্রু নাচিয়ে)

আমি সোজা হয়ে বসে,,আমার কোল ইশারা করে বললাম,,”শোয়ে পড়ুন।”উনি অবাক চোখে কিছুক্ষণ তাকিয়ে থেকে মুচকি হেসে শুয়ে পড়লেন,,কোলে মাথা রেখেই দু’হাতে কোমর জরিয়ে ধরে পেটে ঠোঁট রেখেই বলে উঠলেন,,,

প্রিন্সেস??মাম্মামকে একদম ব্যাথা দিবে না।।ইউ নো না??গুড গার্লরা কখনো কাউকে হার্ট করে না।।আর মাম্মামকে তো কখনোই না।।এন্ড আই নো,,মাই প্রিন্সেস ইজ আ গুড গার্ল রাইট???সো বি কুয়াইট,,,আদারওয়াইজ,,,বাবাই তোমাকে একদম কোলে নিবে না,, আর আদরও করবে না,,গট ইট???

আপনি এতো সিউরিটির সাথে কিভাবে বলছেন ও মেয়ে?? ছেলেও তো হতে পারে,,

না মেয়েই হবে,,,,

বাহবা,, এতো কনফিডেন্স??

হুমম,,,একদম তোমার মতো কিউট হবে দেখো,,,

নাহ,, আপনার মতো হবে,, অনেক সুন্দর।।।

উহুম,,,বেবির সুন্দর হওয়াটা ইম্পর্টেন্ট না,,,কিউট হওয়াটাই বেশি ইম্পোর্টেন্ট,,,

পার্থক্য কি হলো??(ভ্রু কুচঁকে)

পার্থক্য আছে রোদপাখি,,আছে।।অনেককে দেখবে সুন্দর হলেও তাদের জন্য কিউট ওয়ার্ডটা সুইটেবল মনে হয় না,,,আবার অনেক ক্ষেত্রে দেখবে তেমন সুন্দর না হলেও দেখেই বলতে ইচ্ছে করে,,বাহ খুব কিউট তো।।বুঝতে পারছো ডিসটেন্স টা??(নাক টেনে)

হুমম বুঝলাম,,,এবার আপনি ঘুমোন তো,,,,

আমার কথায় উনি মুচকি হেসে চোখ বন্ধ করে নিলেন,,,আমি উনার চুলে হাত বুলিয়ে চলেছি,,,চোখ বন্ধ করা অবস্থায়ও উনাকে কি সুন্দর লাগছে,,,ইসস কি সুন্দর করে ঘুমাতে পারেন উনি,,,ভাবতে ভাবতেই উনার চোখে ঠোঁট ছুইয়ে দিলাম,,আর সাথে সাথেই উনি চোখ মেলে তাকালেন,,,

#চলবে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here