Addicted_love Part:7

0
304

#Addicted_love
Part:7
Writer:Aarizona Ella
সকাল সকাল গোসল করতে গিয়ে ওয়াস্রুম এ এমন পরা পরলাম।
আল্লাহ গো কোমর গেছে।।মা………..
ব্যাথায় পরান গেছে জ্বলিয়া।
অনেক কস্টে উঠে দাড়ালাম।তারপর গোসল সেরে বের হলাম।
মায়ের সাথে লাঞ্চ করতে বসলাম।দেখি মা কি যেন চিন্তা করছে।
কি হয়েছে মা কি চিন্তা করছো?
কই কিছু হয় নি তো।(অন্য মনষ্ক হয়ে বলল মা)
ওহ আচ্ছা।
বিকেলে চাকরি স্থান এ পৌছিয়ে আবার কাজে লেগে পরলাম। কিন্তুু আজকে তেমন কিছু ঘটলো না।
রাতে বাসায় ফিরে ফ্রেশ হয়ে ডিনার করে শুতে গিয়ে হঠাৎ মনে পড়ে গেল যে আগামী কাল ইশফাক চৌধুরি যেতে বলেছিল ভাবতেই কলিজা মোচড় দিয়ে উঠলো।কি করবো /?????
ভয় লাগছে আবার এক্সাইটেড ও লাগছে।।
কোথায় যেন যেতে বললো।
the cafeteria…
কি করবো যাবো নাকি যাবো না???
পুরা কনফিউশান এ আছি।মা এর কাছে জিজ্ঞাবো?
না বাবা না আবার সন্দেহ করবে।
চিন্তা করতে করতে ঘুমিয়ে পরলাম।
সকালে ঘুম ভাংতেই দেখি ফোন এ ম্যাসেজ এসেছে।।একটি অচেনা নাম্বার থেকে।
কে হতে পারে?
চেক করতেই দেখি
dear beauty-queen,good morning…khub opekkhai achi kokhon je shondha hobe ar kokhon tomar masum face ta dekhar showvaggo hobe..thik 7 tai chole esho…oekkhai thakbo.(Ishfaak)
ওমা!!!মেসেজ দেখতেই আচমকা শুয়া থেকে উঠে বসে পরলাম।উনি আমার নাম্বার কোথায় পেলেন।হার্টবিট ফাস্ট হয়ে গেছে।হচ্ছে টা কি?
আজ কি উঠার ইচ্ছা নাই বুঝি(মা)
হ্যা মা উঠেছি।
সোজা ওয়াস্রুমে ঢুকে পরলাম।ফ্রেশ হয়ে এসে নাস্তা করে কিছুক্ষন টি ভি দেখলাম।আজকের দি৷ টা যেনো কাটছেই না
সন্ধ্যা ছ টার দিকে রেডি হতে গেলাম।কেমন জানি নিজেকে খুব সুন্দর করে সাজাতে ইচ্ছে করছে আজ।
লাল রঙের একটা লং ড্রেস পড়লাম। চোখে হালকা কাজল আর ঠোঁটে হাল্কা করে লাল লিপ্সটিক লাগালাম।
চুল খুলে দিয়ে একবার নিজেকে ভালো করে দেখলাম।
ওয়াহ! আজ যেন অন্যরকম ই লাগছে আমাকে। আমি দেখতে এতো খারাপ না।
কিরে কোথায় যাচ্ছিস?(মা)
আসলে মা!মানে আম!!!!
কিরে তোতলাচ্ছিস কেন?(মা)
না মানে আসলে মা আজকে মারিয়ার বোন এর জন্মদিন ওখানে যাওয়ার জন্য রেডি হচ্ছিলাম( আমতা আমতা করে বললাম)
আমাকে বললি না যে?(মা)
আসলে বলতে ভুলে গেছিলাম মা।(ভয়ে ভয়ে বললাম)
ফিরবি কখন?(মা)
এইযে ঘন্টা খানিক এর মধ্যে চলে আসবো।
আচ্ছা! তুই কি কিছু লুকাচ্ছিস আমার কাছ থেকে?(আবার ফিরে জিজ্ঞাস করলো)মা।
ক ক ক ইইইই? নাতো! আরে না মা তোমার কাছ থেকে কি কখনো কিছু লুকিয়েছি আমি?তুমি আমাকে সন্দেহ করলে মা?( ন্যাকা কান্না করে করতে বললাম)
আচ্ছা হয়েছে হয়েছে আর ন্যাকামি করতে হবে না।সাবধানে যাস আর দেরি করিস না।(মা)
ওকে!লাভ ইউ মা।(জড়িয়ে ধরে বললাম)
ঘর থেকে বেরিয়ে পরলাম।রিকশা ঠিক করে রওয়ানা হলাম ইশফাক চৌধুরির দেওয়া ঠিকানায়।
একটা অনেক বড় রেস্টুরেন্ট এর সামনে এসে রিক্সা থামলো।ভাড়া মিটিয়ে ভিতরে ঢুকতে যাবো তখনই রেস্টুরেন্টের একটা ওয়েটার আমার সামনে এসে দাড়ানোর কারনে খুব ভয় পেয়ে যাই।
যদি লাথি মেরে বের টের করে দেয় তখন ইজ্জত সম্মান এর ফালুদা হয়ে যাবে।
আপনি কি মিস এলা?(লোক টি)
জ___জ___জ্বী!(ভয়ে চুপসে গেছি)
দড়িয়ে আছেন কেনো ম্যাম?ভিতরে আসুন প্লিজ।খুব নম্রতার সাথে বললেন (লোক টি)
হুম!পা বাড়ালাম।
লোক টি দরজা খুলে আমাকের ভিতরে প্রবেশ করার আহব্বান জানালেন।
ভিতরে ঢুকতেই।।এ কি? পুরা রেস্টুরেন্ট খালি কেন!!!!!
খুব সুন্দর করে চারিদিক সাজানো হয়েছে।যেন স্বপ্ন দেখছি।
এদিকে আসুন ম্যাম(লোক টি)
বলেই আমাকে বাম পাশের টেবিল এর দিকে নিয়ে গিয়ে বসতে বল্লো।
টেবিল টা খুব সুন্দর করে ক্যান্ডেল দিয়ে সাজানো।
টেবিল এর উপর একটি নেম প্লেট রাখা আছে।যেখানে লিখা আছে
Sorry😊
খুব অবাক লাগছে আমার।রীতিমতো চমকে যাচ্ছি এক এক সারপ্রাইজ দেখে।কিন্তুু উনি কই?
চারপাশে খুজতেই পিছন থেকে কেও একজন বলে উঠলো
কেমন লাগলো সারপ্রাইজ? (………)
ফিরে তকাতেই যেন সক্ড।
আমার সামনে এসে বস্লো।।
উফ্!!!!দেখতে কতো সুদর্শন। তার ফিগার,লুক,চাহনি দেখলে যে কেউ ফিদা হয়ে যাবে(মনে মনে)
হ্যালো মিস!!কি ভাবছো?(ইশফাক)
না,,,,,,মানে,,,,,,, কি,,,কি,,,কি,,।,,কিছু না(হাল্কা গলা খাঁকরে বললাম)
আমি ইশফাক চৌধুরি।।এর আগে একবার পরিচয় হয়েছে আমাদের।(হাত বারিয়ে বললো) ইশফাক।
জ্বী।তো কেমন আছেন?
হুম ভালো আছি আবার নেই।(ইশফাক)
,,,,,,,,,,,,,,,,,,,(অবাক হয়ে তাকালাম)
জিজ্ঞাস করবে না কেন ভালো আছি আর কেন ভালো নেই?মুচকি হেসে(ইশফাক)।।
হুম।কেন ভালো নেই আগে এটা জানতে চাইবো?
ভালো নেই এজন্যই এতো সুন্দর একটা মেয়ে আমার চোখ এ আগে পরলো না কেম্নে?(ইশফাক)
আর ভালো থাকার কারন?
অনেক দিন অপেক্ষা করার পর ফাইনালি তোমার সাথে সরাসরি কথা বলার সৌভাগ্য হয়েছে।তাই আজকে আমি অনেক খুশি আর ভালো। (ইশফাক)
হুম।
তার কথা শুনে রীতিমতো অবাক হচ্ছি।
i am sorry again plz forget it and let’s start afresh!(ইশফাক)
It’s ok and i am also sorry.(একমুখ হেসে)
ততক্ষনে কফি নিয়ে এসেছে!
আচ্ছা একটা কুয়েসশন ছিল?
হুম বলো(এক রাশ হেসে)কফি আমার দিকে এগিয়ে দিতে দিতে বললো।(ইশফাক)
পুরা রেস্টুরেন্ট খালি কেন?
আমি সব টেবিল বুক করে ফেলেছি কারন তুমি আমার জন্য অনেক স্পেশাল তোমাকে স্পেশাল ফিল করানো টা ছিল আমার উদ্দেশ্য। (ইশফাক)
থাংক ইউ সো মাচ!আসলে আমি খুব লজ্জিত সেদিনের ব্যাবহারের জন্য।(মাথা নিচু করে বললাম)
আহা!!!!চিল ইয়ার!ইট’স ওকে।আমি সব ভুলে গেছি আর তুমিও ভুলে যাও।যদি এখনই কফি খাওয়া শুরু না করো তবে এগুলা কফি আর থাকবে না ওই যে বাংলায় কি বলে …….. উমমম হ্যা শরবত হা হা হা হা(ইশফাক)
কি সুন্দর মনকাড়া হাসি দেখলে চোখ ফিরাতে ইচ্ছা করে না(একপলক তাকিয়ে মনে মনে)।
হঠাৎ আমার ভাবনায় ছেদ করে বললো
এখন শুরু করেন ম্যাডাম(ইশফাক)
অনেক্ষন গল্প করলাম,আজকে অনেকদিন পর মন খুলে হাসলাম।
এবার যাওয়া যাক দেরি হয়ে যাচ্ছে নাহলে মা আবার চিন্তা করবে।
চলো তোমাকে বাসায় পৌছে দেই(ইশফাক)
না আমি যেতে পারবো।। (সাথে যেতে তো খুব ইচ্ছা করছে কিন্তু ফরমিলিটির জন্ন্যে মানা করলাম)মনে মনে।
রাত নয় টা বাজে!এত রাতে একা যাওয়া ঠিক হবে না।চলোপৌছে দেই।(ইশফাক)
আচ্ছা।
একসাথে বের হলাম।
তুমি একটু দাড়াও পার্কিং থেকে গাড়ি নিয়ে আসছি। (ইসফাক)
হুম।
একটি কালো রঙের কার আমার সামনে এনে থামালেন।গ্লাস নামিয়ে দরজা খুলে গাড়িতে উঠতে বললেন।
আমি চুপচাপ গাড়িতে উঠে বসলাম।
তিনি ড্রাইভ করছেন আর আমি আড়চোখ এ উনাকে দেখছি।
আমাকে জিজ্ঞাস করলেন আমার বাসা কোনদিকে।
বাসার ঠিকানা বললাম আর তিনি ঠিকানা অনুযায়ী নিয়ে যাচ্ছেন।আমি মুখে হাত দিয়ে রেখেছি!
কি?amy problem? (ইশফাক)
আমার না কারে উঠলে বমি আসে।(মুখ বেকে বললাম)।
শান্ত হয়ে বসো।আমি এ সি বাড়িয়ে দিচ্ছি।কিছুক্ষন এর মধ্যে পৌছে যাব সো বি কাম!(মুচকি হেসে)ইশফাক।
কিছুক্ষন এর মধ্যে বাসার সামনে চলে আসলাম।
আমাকে নামিয়ে দিয়ে বললো
আবার কখন দেখা হবে?(মুচকি হেসে জিজ্ঞাস করলেন)ইশফাক।
খুব শিগগিরই।
আমি চলে যাওয়ার সময় একবার পিছনে ফিরে দেখি তিনি আমার দিকে এক নজর তাকিয়ে আছে।
আমি মুচকি হেসে বাসায় ঢুকে পরলাম।
চলবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here